আজ ভোট; কে হচ্ছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী

শিনজো আবে’র পর কে হবেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী তা নির্ধারণে আজ ভোট হচ্ছে ক্ষমতাসীন দলে। এই ভোটে যিনি নির্বাচিত হবেন কার্যত তিনিই হবেন নতুন প্রধানমন্ত্রী। সবাইকে ছাড়িয়ে এই দৌড়ে এগিয়ে আছেন ৭১ বছর বয়স্ক ইয়োশিহিদে সুগা। তিনি বর্তমান মন্ত্রীপরিষদের মুখ্য সচিব। শিনজো আবের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ সখ্য আছে বলে বিবেচনা করা হয়। তাই ধারণা করা হয়, উত্তরাধিকারের রাজনীতি তিনিই ভালভাবে সামনে টেনি নিয়ে যেতে পারবেন। ক্ষমতাসীন রক্ষণশীল লিবারেল ডেমোক্রেট পার্টি (এলডিপি) নতুন নেতা নির্বাচন করার পর আগামী বুধবার পার্লামেন্টে আরেকটি ভোট হবে। প্রাথমিক ভোটে নির্বাচিত ব্যক্তি সেদিন পার্লামেন্টে নির্বাচিত হবেন- এটা নিশ্চিত।

কারণ, পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা আছে এলডিপি’র। এখন প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতার মধ্যমেয়াদ। ফলে যিনিই নির্বাচিত হোন না কেন, তাকে সরকারের বাকি অর্ধেক সময় টেনে নিতে হবে। এরপর ২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে সেখানে আবার নতুন নির্বাচন হবে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

কে এই সুগা
ইয়োশিহিদে সুগা জন্ম নিয়েছিলেন একজন স্ট্রবেরি চাষীর ঘরে। বর্তমানে তিনি বর্ষীয়ান রাজনীতিক। বর্তমানে তিনি মন্ত্রীপরিষদের মুখ্যসচিব হওয়ায় কেন্দ্রীয় দায়িত্ব রয়েছে তার হাতে। তিনিই বাকি সময় সরকারকে সামনে এগিয়ে নিতে পারবেন বলে আশা করা হচ্ছে। টোকিওর সোফিয়া ইউনিভার্সিটির রাষ্ট্রবিজ্ঞানের প্রফেসর ও ডিন কোইচি নাকানো বলেছেন, শিনজো আবে এবং তার দলের নেতারা যৌথভাবে সুগা’কে বেছে নিয়েছেন যথার্থভাবে। কারণ, তিনিই সেরা প্রার্থী। শিনজো আবের অনুপস্থিতিতে তিনিই আবে সরকারকে অব্যাহতভাবে গতি দিতে পারবেন। তাকে অত্যন্ত কার্যকর ও প্রাকটিক্যাল মনে হয়। স¤্রাট আকিহিতোর কাছ থেকে ২০১৯ সালে বর্তমান স¤্রাট নারুহিতোর কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়ায় তিনি ছিলেন সবচেয়ে সামনের সারির মানুষ।

আর কে কে নির্বাচনে
এই প্রতিযোগিতায় আরো দু’জন প্রতিযোগী আছেন। তারা হলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী কিশিদা ফুমিও এবং এলডিপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক শিগেরু ইশিবা। এর মধ্যে কিশিদা ফুমিও গত তিন বছর ধরে দলের পলিসি রিসার্স কাউন্সিলের নেতৃত্বে রয়েছেন। তার বয়স ৬৩ বহছর। তিনি সুগা’র চেয়ে আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক প্রজ্ঞাসম্পন্ন। তৃতীয়জন ছিলেন শিনজো আবে সরকারের এক সময়কার প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

 

 

সূত্র: দৈনিক মানবজমিন।

Print Friendly, PDF & Email
×

সারা বাংলা সারা দিন-এর সাথেই থাকুন!