চার ম্যাচ নিষিদ্ধ ডি মারিয়া

বড় শাস্তি পেলেন পিএসজির আর্জেন্টাইন উইঙ্গার অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া। ফ্রেঞ্চ লীগ ওয়ানে পিএসজি-মার্শেই ম্যাচে মারামারির ঘটনায় চার ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন ৩২ বছর বয়সী এই তারকা।

গত ১৪ই সেপ্টেম্বর মার্শেইয়ের কাছে ১-০ গোলে হারে পিএসজি। সে ম্যাচের শেষ দিকে মারামারিতে জড়িয়ে পড়েন দু’দলের ফুটবলাররা। লাল কার্ড দেখেন নেইমার সহ পাঁচ ফুটবলার। মার্শেই ডিফেন্ডার আলভারো গঞ্জালেসকে ডি মারিয়া থুতু ছিটিয়েছেন বলে ম্যাচ শেষে অভিযোগ করেন মার্শেই কোচ আন্দ্রে ভিয়াস-বোয়াস। সেই অভিযোগ তদন্ত করে ডি মারিয়াকে নিষিদ্ধ করে লীগ কর্তৃপক্ষ। তারা অবশ্য নিষিদ্ধের কারণ হিসেবে থুতু ছিটানোর বিষয়টি উল্লেখ করেনি। ডি মারিয়ার নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে ২৯শে সেপ্টেম্বর থেকে।

আগামী রোববার লীগে রেঁসের বিপক্ষে খেলতে পারবেন তিনি। তবে এরপর অঁজে, নিম, দিজঁ ও নঁতের বিপক্ষে খেলত পারবেন না।

আলভারো গঞ্জালেসকে মাথার পেছনে চড় মেরে দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হন নেইমার। সেই ম্যাচের ঘটনায় মার্শেই ডিফেন্ডার জর্ডান আমাভিকে লাথি মেরে সবচেয়ে বড় শাস্তি পেয়েছেন পিএসজির লেভিন কুরজাওয়া। ৬ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন এই ফরাসি ডিফেন্ডার। আমাভি নিষিদ্ধ হয়েছেন ৩ ম্যাচ। দুই আর্জেন্টাইন পিএসজির লিয়ান্দ্রো পারেদেস ২ ম্যাচ ও মার্শেইয়ের দারিও বেনেদিত্তো ১ ম্যাচের জন্য নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন।

আলভারো গঞ্জালেসের বিরুদ্ধে নেইমার অভিযোগ করেন, ‘আলভারো তাকে বর্ণবাদী গালি দিয়েছেন’। আলভারোর বিরুদ্ধে তদন্ত চলমান রয়েছে। ফরাসি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, অভিযোগ প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ ১০ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পেতে পারেন এই স্প্যানিশ ডিফেন্ডার।

নেইমারের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ করেছে মার্শেই। ক্লাবটির দাবি, তাদের জাপানিজ ডিফেন্ডার হিরোকি সাকাইকে বর্ণবাদী গালি দিয়েছেন নেইমার। এ ছাড়া আলভারো গঞ্জালেসকে সমকামী বিদ্বেষী গালি দেওয়ার অভিযোগও করা হয়েছে নেইমারের বিরুদ্ধে। মার্শেইয়ের অভিযোগ আমলে নিয়ে নেইমারের বিরুদ্ধে আগামী ৩০শে সেপ্টেম্বর কাজ শুরু করবে তদন্ত কমিটি।

Print Friendly, PDF & Email
×

সারা বাংলা সারা দিন-এর সাথেই থাকুন!