নিউজিল্যান্ড মসজিদে হামলার ১৫ লাখ ভিডিও সরিয়েছে ফেসবুক

নিউজিল্যান্ড মসজিদে হামলার ১৫ লাখ ভিডিও সরিয়েছে ফেসবুক
ছবি : সংগৃহীত

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ১৫ লাখ ভিডিও ফেসবুক থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে বলে জানিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।  ভয়াবহ এই হামলার প্রথম চব্বিশ ঘন্টার মধ্যেই এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। 

শনিবার রাতে টুইট বার্তায় ফেসবুক জানায়, প্রথম ২৪ ঘন্টার মধ্যেই আমরা বিশ্বব্যাপী হামলার ১৫ লাখ ভিডিও মুছে ফেলেছি।  এর মধ্যে ১২ লাখের বেশি ভিডিও আপলোড করার সময় বাধা দেয়া হয়।    

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ উল্লেখ করে, সন্ত্রাসী হামলার সম্পাদিত সংস্করণের ভিডিওগুলোও মুছে ফেলা হয়েছে।  

উল্লেখ্য, ২৮ বছর বয়সি শ্বেতাঙ্গ সন্ত্রাসী ব্রেন্টন টারান্ট মসজিদে হামলার ঘটনা সরাসরি ভিডিওতে প্রচার করে।  ১৭ মিনিটের এই ভিডিওটির লাখ লাখ কপি সন্ত্রাসী হামলার ঘন্টাখানেকের মধ্যেই বিশ্বজুড়ে অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ে।  ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে ওই হামলায় ৫০ জন নিরীহ মুসল্লি নিহত হন।

শুক্রবারের হামলার ঘন্টাখানেক পরেই নিউজিল্যান্ডের পুলিশ ভয়াবহ এই হামলার ভিডিও শেয়ার না করার জন্য মানুষজনের প্রতি অনুরোধ জানান।  এছাড়া তারা জানান, ভিডিওর ফুটেজ মুছে ফেলার জন্য তারা কাজ করে যাচ্ছেন।

এর কিছুক্ষণ পরেই নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন দেশবাসীর উদ্দেশ্যে আহ্বান জানিয়ে বলেন, নিউজিল্যান্ডবাসী যেন এই ভিডিও শেয়ারের মাধ্যমে ভয়াবহ এই সহিংসতাকে উস্কে না দেয় এবং এর মধ্যে যে বার্তা আছে তা প্রচারে সাহায্য না করে।

ফেসবুকের এত প্রচেষ্টা সত্ত্বেও সন্ত্রাসী হামলার সব ভিডিও এখনো সরানো সম্ভব হচ্ছে না।  এদিকে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, তিনি লাইভ স্ট্রিমিং নিয়ে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করতে চান।

Print Friendly, PDF & Email
×

সারা বাংলা সারা দিন-এর সাথেই থাকুন!