পাকুন্দিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্র রাহাত হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন

মোঃ মুঞ্জুরুল হক মুঞ্জু, পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় হোসেন্দী দাখিল মাদ্রাসার ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী একরাম হোসেন রাহাতকে নির্মম ভাবে হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবীতে হোসেন্দী দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা আজ সোমবার ২ ডিসেম্বর দুপুরে উপজেলা পরিষদের সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন প্রতিবাদ মিছিল করেন।

মাদ্রাসার সুপার সালাউদ্দিনের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন এলাকাবাসী কামাল উদ্দিন খোকন, হোসেন্দী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন সবুজ, হোসেন্দী বাজার ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন, সহ-সুপার মাওঃ জালাল উদ্দিন, সিনিয়র শিক্ষক জয়নাল আবেদীন। উলে­খ্য যে, হোসেন্দী দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী জেরিন আক্তার একই মাদ্রাসার শিক্ষার্থী একরাম হোসেন রাহাতের সাথে লেখাপড়া করার সুবাদে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

প্রেম করে গত ২০/১০/২০১৯ তারিখে দুইজনে কিশোরগঞ্জ নোটারী পাবলিক ৯৪২নং এফিডেভিট মূলে বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকে জেরিনের পরিবার হোসেন্দী বাজার থেকে জেরিনের পিতা-মাতা আমার বাড়ী থেকে পুত্রবধু জেরিন আক্তারকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ সংগোপনে হাফিজুর রহমান রুবেল ও তার স্ত্রী নিলুফা আক্তার পাশ্ববর্তী আজলদী গ্রামে তাহার খালু মোঃ মাজু মিয়ার বাড়িতে নিয়ে যায়। নিয়ে যাওয়ার পর থেকেই হাসানসহ আলাউদ্দিন, রিয়াজ উদ্দিন, রানা, মোঃ রেনু মিয়ার পুত্রকে দড়ি দিয়া হাত পায়ে বেঁধে বেদম মারপিট করে এবং রাহাতের মুখে কীটনাশক ডেলে দেয়। এতে সে অসুস্থ্ হয়ে গেলে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৫/১২/২০১৯ তারিখ মৃত্যুবরণ করে।

এব্যাপারে রাহাতের পিতা মোঃ রেনু মিয়া পাটুয়াভাঙ্গা উত্তর সাটিয়াদী গ্রামের আলাউদ্দিনের পুত্র হাফিজুর রহমান রুবেলকে সহ ৮ জনকে আসামী করে গত ২৮ নভেম্বর কিশোরগঞ্জ কোর্টে ৩০২/৩৪ দঃবিঃ আইনে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

Print Friendly, PDF & Email