ভৈরবে নিজ বাসায় রহস্যজনক খুন; নজরদারীতে স্ত্রী

আফসার হোসন তুর্যা, ভৈরব প্রতিনিধি: ভৈরবে নিজ বাসায় মাহবুবুর রহমান নামে এক রেলওয়ে কর্মচারী খুন হয়েছে। পৌর শহরের চণ্ডিবের এলাকার আইভি রহমান পাড়ায় বুধবার গভীর রাতে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে।

এ সময় নিহতের স্ত্রী রোকসানা বেগমও আহত হয়েছে। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতের স্বজনরা জানায়, তিন সন্তানের জনক মাহবুবুর রহমান রেলওয়ে বিভাগের একটি ওয়ার্কসপে চাকুরী করতেন। তিনি সাপ্তাহিক ছুটিতে প্রতি বৃহস্পতিবার বাড়িতে আসতেন। কিন্তু এ সপ্তাহে এক দিন আগেই অর্থাৎ ২৭ নভেম্বর বুধবার রাতে বাড়িতে আসেন। রাতের আধারে বেড রুমে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে খুন হয় মাহবুব। পরে নিহতের রক্তাক্ত নিথর মরদেহ খাটের উপর পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়।

হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটিকে রহস্যজনক মনে করছেন নিহতের স্বজনরা। তবে আহত স্ত্রীর দাবী গভীর রাতে তাদের বাসায় ডাকাতদল হানা দেয়। পরে ডাকাতরা বাসায় ঢুকে স্বামী-স্ত্রী দু’জনকে ছুরিকাঘাত করে। ফলে তার স্বামী নিহত হয়। এছাড়াও ডাকাতরা বাসা থেকে স্বর্ণালংকারসহ নগদ টাকা লুটে পালিয়ে যায়। এছাড়াও তিনি একেক সময় একেক কথা বলছেন।

এদিকে হত্যাকাণ্ডের খবর পেয়ে ভৈরব খানা পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। একই সঙ্গে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ভৈরব থানার ওসি মোহাম্মদ শাহিন জানান, বাসায় কোনো ডাকাতির আলামত পায়নি পুলিশ। ফলে বিষয়টিকে রহস্যজনক মনে করছেন আইন শৃংখলা বাহিনীর লোকজন।

তাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিহতের আহত স্ত্রী রোকসানাকে পুলিশের নজরদারীতে রাখা হয়েছে। তাছাড়া নিহতের মরদেহের পাশ থেকে একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email