মাথায় হিজাব, বুকে গোলাপ ও হাতে রাইফেল নিয়ে মসজিদের নিরাপত্তায় নারী পুলিশ

মাথায় হিজাব, বুকে গোলাপ ও হাতে রাইফেল নিয়ে মসজিদের নিরাপত্তায় নারী পুলিশ

মাথায় হিজাব, বুকের গোলাপ নিয়ে একটি মসজিদের নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছিলেন। ছবি:ittefaq

আজ নিউজিল্যান্ডবাসী একতার প্রতীক। তাদের হৃদয় ভাঙলেও ভেঙে যায়নি ঐক্য। তাইতো নিউজিল্যান্ডবাসীর একটাই কথা, কেউ আমাদের বন্ধনে চিড় ধরাতে পারবে না। আমরা শুধু ভালোবাসবো একে অন্যকে।

আর সেই ভালোবাসবোর বন্ধনকে আরো গভীর করে তুললেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন। ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে পৈশাচিক হত্যাকাণ্ডের পর মুসলমানদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেন তিনি। এ জন্য মাথায় ওড়না জড়িয়ে তিনি প্রকাশ্যে আসেন। প্রধানমন্ত্রীর এই পদক্ষেপ বিশ্বব্যাপী ব্যাপক প্রশংসিত হয়।

এবারও আরও একটি ঘটনা দৃষ্টি কাড়লো বিশ্ববাসীর। বৃহস্পতিবার ক্রাইস্টচার্চের মেমোরিয়াল পার্ক সমাধিক্ষেত্রে একজন নারী পুলিশকে দেখা যায়। তিনি মাথায় হিজাব জড়িয়ে, বুকের ওপর লাল গোলাপ নিয়ে একটি মসজিদের নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছিলেন। তার হাতে ছিল বুশমাস্টার সেমি-অটোমেটিক রাইফেল।

নারী পুলিশের এই ছবিটিকে সংহতি, সম্মান ও নিরাপত্তার প্রতীক হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন বিশ্ববাসী। তাদের মতে, এই তিনটি বিষয়ের সমন্বয়ে এটি ‘অত্যন্ত শক্তিশালী’ একটি ছবি।

মাথায় হিজাব, বুকে গোলাপ ও হাতে রাইফেল নিয়ে মসজিদের নিরাপত্তায় নারী পুলিশ
ছবি:ittefaq

নিউজিল্যান্ডের অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘স্টাফ’ এর ফটো সাংবাদিক আলডেন উইলিয়ামস ছবিটি তুলেছেন। ওই নারী পুলিশ সদস্যের নাম মাইকেল ইভানস। তিনি একজন কন্সেটেবল।

ছবিটি ইতোমধ্যে ব্যাপক ভাইরাল হয়ে গেছে। এ নিয়ে অনেকে কমেন্টও করেছেন। একজন লিখেছেন, ছবিটি নিউজিল্যান্ডের সহিষ্ণুতা, সমবেদনা এবং মানবতার এক বলিষ্ঠ উদাহরণ।

Print Friendly, PDF & Email
×

সারা বাংলা সারা দিন-এর সাথেই থাকুন!