রাঙাকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে: নূর হোসেনের মা

গণতন্ত্র আন্দোলনের বীর যোদ্ধা নূর হোসেনকে নিয়ে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙার মন্তব্যের প্রতিবাদে প্রতিবাদী অবস্থান নিয়েছেন নূর হোসেনের মা মরিয়ম বেগমসহ পরিবারের সদস্যরা। আজ বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে তারা অবস্থান নিয়েছেন। সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের নূর হোসেনের মা মরিয়ম বেগম বলেন, ৩০ বছর পর এই লোক এতো বড় কথা বলেছে। তাকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে। এর বিচারের ভার আমি দেশের মানুষের ওপর সরকারের ওপর ছেড়ে দিলাম।

রোববার জাতীয় পার্টি আয়োজিত ‘গণতন্ত্র’ দিবসের এক আলোচনায় রাঙা বলেন, নূর হোসেন কে? একটা অ্যাডিকটেড ছেলে। একটা ইয়াবাখোর, ফেন্সিডিলখোর। নূর হোসেনকে নিয়ে গণতান্ত্রিক দুই দল, আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি নাচানাচি করে।

বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় দেখবেন নূর হোসেন দিবস। সেই নূর হোসেন চত্বর এরশাদ করে দিয়েছেন। গণতন্ত্রের শহীদ নূর হোসেনকে নিয়ে সাবেক স্বৈর শাসকের দলের মহাসচিবের এমন মন্তব্যে তোলপাড় চলছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তীব্র সমালোচনা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ১৯৮৭ সালের ১০ই নভেম্বর বুকে ও পিঠে ‘স্বৈরাচার নিপাত যাক, গণতন্ত্র মুক্তি পাক’ স্লোগান লিখে রাস্তায় নেমেছিলেন নূর হোসেন। এরশাদের স্বৈরশাসনবিরোধী আন্দোলন তখন তুঙ্গে। ওইদিন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের একটি মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন নূর হোসেন। মিছিলটি জিরো পয়েন্ট এলাকায় পৌঁছালে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ও গুলি ছোড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান নূর হোসেন। এ ঘটনার পর এরশাদবিরোধী আন্দোলন তীব্র আকার ধারণ করে। ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হন এরশাদ। ১০ই নভেম্বর বিভিন্ন রাজনৈতিক দল নূর হোসেন দিবস পালন করে থাকে।

Print Friendly, PDF & Email
×

সারা বাংলা সারা দিন-এর সাথেই থাকুন!