সাংসদ লিটন হত্যা মামলায় কর্নেল কাদেরসহ ৭ জনের ফাঁসি

এমএ মাসুদ, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের আওয়ামীলীগ দলীয় সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলায় জাতীয় পার্টির সাবেক এমপি কর্নেল কাদের খানসহ ৭ জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে গাইবান্ধার জেলা ও দায়রা জজ দিলীপ কুমার ভৌমিক এ রায় ঘোষণা করেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত অন্য আসামিরা হলেন, কাদের খানের পিএস শামসুজ্জোহা, গাড়িচালক হান্নান, মেহেদী, শাহীন, চন্দন ও রানা। এ মামলায় মোট আসামি ছিলেন ৮ জন, তার মধ্যে সুবল নামে এক আসামি মারা গেছেন।

উলে­খ্য, ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের সাহাবাজ গ্রামের মাষ্টারপাড়ায় নিজ বাড়িতে দূর্বৃত্তের গুলিতে আহত হন এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানেই তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহত এমপি লিটনের ছোট বোন ফাহমিদা বুলবুল কাকলী ৪/৫ জন কে অজ্ঞাতনামা আসামী করে সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে সাবেক এমপি কাদের খান সহ ৮ জনের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালের ৩০ এপ্রিল আদালতে অভিযোগ পত্র দেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা।

অভিযোগপত্রের আসামিদের মধ্যে সুবল চন্দ্র রায় মামলার বিচার চলাকালেই কারাগারে অসুস্থ হয়ে মারা যান। আর চন্দন কুমার রায় নামে এক আসামি পলাতক রয়েছেন। কাদের খানসহ বাকি ছয় আসামি বৃহস্পতিবার রায়ের সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

বাদী, নিহতের স্ত্রী ও তদন্ত কর্মকর্তাসহ মোট ৫৯ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত বৃহস্পতিবার রায় ঘোষণা করলো। একই ঘটনায় অস্ত্র মামলার রায়ে গত ১১ জুন আবদুল কাদের খানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত। এছাড়া অস্ত্র মামলায় পৃথক এক ধারায় তাকে ১৫ বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

Print Friendly, PDF & Email