1. sowdagor@gmail.com : সারাবাংলা ডেস্ক :
পাকুন্দিয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে শিক্ষিকাকে পিটিয়ে আহত; থানায় অভিযোগ
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৪০ অপরাহ্ন
ঘোষনা
বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদপত্র সারাবাংলা সারাদিন ডট কম এর ৬ষ্ঠ বর্ষে পদার্পনে সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা।  সারাবাংলা সারাদিন এর সাথেই থাকুন....

পাকুন্দিয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে শিক্ষিকাকে পিটিয়ে আহত; থানায় অভিযোগ

  • সময় শনিবার, ২৯ মে, ২০২১

মো. মঞ্জুরুল হক মঞ্জু, পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার এগারসিন্দুর ইউনিয়নের এগারসিন্দুর গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় হুমায়ুন কবির বাদলের স্ত্রী স্কুল শিক্ষিকা মনোয়ারা খাতুন রিনা কে পিটিয়ে গুরতর আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে সোহানুর রহমান সোহাগসহ তিনজনকে আসামী করে পাকুন্দিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগসূত্রে জানা যায়, এগারসিন্দুর গ্রামের মৃত দৌলত হোসেনের ছেলে সোহানুর রহমান সোহাগ (৩৫), ফারুক (২৬), সোনিয়া আক্তার (২৮) ‘ওরা আমার সৎ ভাই’ গত একবছর পূর্বে আমার পিতা মারা যান। মৃত্যুর পর থেকে আমার দলীল মূলে প্রাপ্ত জমি দখল করার জন্য পায়তারা করে আসছে। তারই জেরে গত ২৭ মে সকালে পূর্ব শত্রুতার আক্রোশে আমার দুই সৎ ভাই ও ভাই বউ দা, লাঠি ও লোহার রড নিয়ে আমার প্রতিবেশী রশিদের বাড়ির সামনে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। অামার রোপন করা অাম, জাম, কাঁঠাল, কলাগাছ কেটে ফেলে. এতে আমি প্রতিবাদ করলে সৎ ভাই-বোন দলবদ্ধ হয়ে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে আমাকে আহত করে। আমার ডাকচিৎকারে আমার স্ত্রী মনোয়ারা খাতুন এগিয়ে এলে সোহাগের হাতে থাকা লোহার রড দিয়ে আমার স্ত্রী কে খুন করার উদ্দেশ্যে বারি মারিলে মাটিতে পড়ে গেলে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়। আমার সৎ ভাই ফারুক আমার স্ত্রীর পরনের কাপড় টেনে হেঁচড়ে শ্লীলতা হানি করে এবং গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে আমার এবং আমার স্ত্রীর ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী উদ্ধার করে অটো রিকশাযোগে পাকুন্দিয়া হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করে।

২৮ মে দুপুর একটার দিকে আমার স্ত্রী মনোয়ারা খাতুন কে হাসপাতালে গিয়ে আমার সৎ বোন রোজিনা ও হোসনা আমার স্ত্রী কে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারপিট করে।

পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য প.প. কর্মকর্তা ডা. শারমিন শাহনাজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মারপিটের ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সারোয়ার জাহান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উভয় পক্ষের অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ
Logo Sarabangla Saradin